কিভাবে ফেসবুক বুস্টিং(Facebook Boosting)করবেন এবং ফেসবুক পেজে লাইক বাড়াবেন ? - Blogger

কিভাবে ফেসবুক বুস্টিং(Facebook Boosting)করবেন এবং ফেসবুক পেজে লাইক বাড়াবেন ?

Facebook marketing

Facebook-boosting:বর্তমানে ফেসবুকসহ বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল মিডিয়াতে একের পর এক নতুন কোম্পানি এবং নতুন নতুন পেজ তৈরি হচ্ছে | এসব পেজ এবং কোম্পানির একটাই উদ্দেশ্য ব্যবসা করা | আর আমাদের মত ডিজিটাল মার্কেটারদের কাজ তাদের ব্যবসা কে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করে | সুতরাং এই ভিডিওতে আমরা দেখাবো যে কিভাবে তাদের ব্যবসা কে আমরা আগে নিজেদের নিয়ে যেতে পারি এবং সাথে নিজেও লাভবান হই |

 

মার্কেটার মানেই হচ্ছে আপনি অন্যের পণ্য বা নিজের পণ্য বিভিন্ন দোকানে অথবা মার্কেটে বিক্রি করার ব্যবস্থা করে দিবেন | আগে যেখানে আমরা দেখতাম মানুষ দিনের পর দিন অফলাইনে বিভিন্ন ধরনের কর্মী নিয়োগ করে মার্কেটিং করত |

 

 কিন্তু বর্তমান প্রেক্ষাপট দেখলেই বুঝবেন যে চিত্রটা আসলে পাল্টে গেছে এবং এখনকার বেশিরভাগ কোম্পানির ব্যক্তি নির্ভর ব্যবসা গুলো বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল মিডিয়া নির্ভর হয়ে গেছে | তার কারণ একটাই বর্তমান দুনিয়াটাই সোশ্যাল মিডিয়া নির্ভর হয়ে গেছে এবং আমরা বর্তমানে ঘরে বসে পণ্য পেতে ভালোবাসি | কারণ আমাদের সময়ের মূল্য রয়েছে এবং সাথে সাথে আমরা নিজেদের শরীর কেউ কষ্ট দিতে চাইনা|

 

 আপনি লোকাল মার্কেট সহ বিভিন্ন ধরনের মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে গেলে অনেক সময় অনেক রকম ক্লায়েন্ট পাবে যারা আপনাকে বলবে যে আমার পেজে অরগানিক ভাবে লাইক বাড়িয়ে দাও | সে ক্ষেত্রে অবশ্যই মনে রাখতে হবে আপনি কোন প্রকার নেগেটিভ পন্থা অবলম্বন করবেন না | কারণ বর্তমানে একটা নেগেটিভ পন্থা অবলম্বন করে এক প্রকার ব্যবসায়ী শ্রেণি যারা বিভিন্ন সফটওয়্যার অথবা নিজেরা মেয়ে সেজে এবং নানাভাবে তারা হচ্ছে ফেসবুকে পেজের লাইক বাড়িয়ে দিচ্ছে | এটা কোন অর্গানিক বা প্রফেশনাল কাজ না | এতে করে যেমন আপনার নিজের রেপুটেশন নষ্ট হচ্ছে তেমনি তার পেজে ক্ষতিও অনেক বেশি হচ্ছে| সুতরাং আমরা চেষ্টা করব এই পন্থা অবলম্বন না করা |

 

 অনেকে বলতে পারে আপনাকে তার পেজ এর যেকোনো একটি পোস্ট অথবা বিভিন্ন ধরনের পণ্য আছে যেটাকে আপনার মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে হবে এবং তা বিক্রি করে দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে যার মাধ্যমে আপনি তার ব্যবসা কে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করছেন |  যে কারো পণ্য মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া তাই হচ্ছে  বুষ্টিং এর কাজ |

Video Tutorial

 

 বিভিন্ন ধরনের ক্লায়েন্ট আপনাকে বলতে পারে যে তার একটি ডক ফাইল রয়েছে যেখান থেকে আপনি তার ফাইলটি মানুষের কাছে পৌঁছে দেন এবং বিভিন্ন মানুষের নাম ইমেইল এড্রেস অথবা ফোন নাম্বার জোগাড় করে দেন | সুতরাং এই ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই লিড জেনারেটর সেক্টরটি বেছে নিতে হবে |

 

 আপনাকে জানতে হবে কিভাবে কারো অথবা নিজের ওয়েবসাইটটি মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া যায়| সে ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই ওয়েব সাইট ভিজিটর অপশনটি বেছে নিতে হবে |

 

 উপরের কাজগুলো করার জন্য আপনাকে কিছু সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে(Facebook-boosting) এ এবং সঠিকভাবে কাজগুলো সম্পন্ন করতে হবে যাতে পরবর্তীতে বিশ্বস্ততার খাতিরে আপনি পুনরায় আগের ক্লায়েন্টের কাজ গুলো পেতে  পারেন | কোন পেজ লাইক বা বুষ্টিং করার ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই এলাকা, বয়স, এবং তাদের মাঝে আপনি  বুস্ট করলে আপনার ক্লাইন্ট এর ব্যবসা প্রসারিত হবে এই গুলো আপনাকে অবশ্যই ভালোভাবে এনালাইসিস করে নিতে হবে |

 নিজের ব্যবসা বাড়ানোর জন্য যদি নিজে বুষ্টিং বা পেজ এ লাইক বাড়াতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই একটি মাস্টার কার্ড থাকতে হবে এবং সেটা হবে অবশ্যই ডুয়েল কারেন্সি মাস্টার কার্ড | আমি রিকমেন্ড করব আপনাকে ইস্টার্ন ব্যাংকের মাস্টার কার্ডটি ব্যবহার করুন কারণ এইটা যেকোনো কাজে আপনি ব্যবহার করতে পারবেন|

.পোস্ট করার জন্য বিভিন্ন বিষয়বস্তুর জন্য বিভাগের সময়

 

এখানে কৌশলটি হ’ল দিনব্যাপী বিভিন্ন ধরণের সামগ্রী পোস্ট করা  সেটি হতে পারে আপনার ব্যবসায়িক বিষয়ে অথবা হতে পারে আপনার নতুন অভিজ্ঞতা নিয়ে কিছু বা পুরাতন অভিজ্ঞতা নিয়ে কিছু 

 

তারপরে কোন সময়ে কী কাজ করে তা নোট করুন। 

 

উদাহরণস্বরূপ, সকালে একটি নিউজ লিঙ্ক পোস্ট করুন যাতে আপনার ভক্তরা বিশ্বের কী ঘটছে তা ধরতে পারে এবং সবসময়ই একই ধরনের নিউজ লিংক পোস্ট করবেন না কারণ এতে আপনার কাস্টমার অথবা ভিউয়ার্স কমে  যেতে পারে

 

তারপরে বিকেলে আরও হালকা-হৃদয়যুক্ত কিছু প্রকাশ করুন – মেম, মজাদার প্রশ্ন বা উক্তিটির মতো এবং তাদের কেউ পারলে কল এর মাধ্যমে বিভিন্ন ভাবে উত্তর দেওয়ার সুযোগ করে দিন 

 

তারপরে পরের দিন বিপরীত করুন এবং ফলাফলগুলি তুলনা করুন।

 

 আশা করি পোস্ট থেকে এবং ভিডিও থেকে আপনি বুস্টিং সম্বন্ধে ভালোভাবে একটা ধারনা পেয়েছেন| 

sagar
 

Click Here to Leave a Comment Below 0 comments

Leave a Reply: